শিরোনামঃ-

» ছিনতাইকারীদের হামলায় সাংবাদিক মিঠু আহত

প্রকাশিত: ১৬. মার্চ. ২০২২ | বুধবার

স্টাফ রিপোর্টারঃ

সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী সদস্য, দৈনিক মানবকন্ঠ ও দৈনিক একাত্তরের কথা’র স্টাফ ফটো সাংবাদিক মিঠু দাস জয়ের উপর হামলা চালিয়েছে মাদকসেবী ও ছিনতাইকারীরা। বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় নগরীর বন্দরবাজার এলাকার রংমহল টাওয়ারের সামনে এ ঘটনা ঘটে। হামলার পর আহত সাংবাদিক মিঠুকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীসূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে নগরীর বন্দরবাজার এলাকার মহাজনপট্টি, কাষ্টঘর এলাকায় মাদক ব্যবসা পরিচালনা, চাঁদাবাজি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন ধরণের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে একাধিক মামলায় জেলখাটা আসামি, সাংবাদিক নামধারী চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ী ইসলাম আলী, নিজাম উদ্দিন টিপু, হিলাল উদ্দিন শিপু, আহমদ আলীর নেতৃত্বাধীন একটি অপরাধীচক্র। তাদের নেতৃত্বে নিয়মিত এই এলাকায় বসে মাদক সেবনের আড্ডা। এই চক্রের সদস্যরা কাষ্টঘর, মহাজনপট্টি, রংমহল টাওয়ারের আশেপাশের এলাকায় ভাসমান ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে নিয়মিত চাঁদা আদায় এবং চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের মারধর করে আসছেন। এই চক্রের উৎপাতে বিরক্ত রংমহল টাওয়ারের ব্যবসায়ীরাও। এ নিয়ে মিঠু দাস জয়ের তোলা ছবিতে দৈনিক একাত্তরের কথা’য় একাধিক সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয় মাদক ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের মূল হোতা ইসলাম আলী। বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় ভুয়া সাংবাদিক ও চাঁদাবাজ ইসলাম আলী মদ্যপ অবস্থায় রংমহল টাওয়ারের নিচে অবস্থিত পানের দোকানে এসে চাঁদা দাবি করেন। রংমহল টাওয়ারে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে মার্কেটের আন্ডারগ্রাউন্ডে প্রবেশের সময় ইসলাম আলীর সামনে পড়ে যান মিঠু দাস। তাকে দেখেই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন ইসলাম আলী। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন মিঠুকে। মিঠু পাশ কাটিয়ে চলে যেতে চাইলে তাকে পেছন থেকে রড দিয়ে আঘাত করেন ইসলাম আলী। পাশাপাশি ইসলাম আলীর সহযোগী তার ছোট ভাই মাদক ব্যবসায়ী নিজাম উদ্দিন টিপু, হিলাল উদ্দিন শিপু, আহমদ আলীসহ ১০-১৫ জন সন্ত্রাসী মিঠু দাস জয়ের উপর হামলা চালান। এ সময় গুরুতর আহত হন মিঠু দাস জয়। তার হাতে থাকা স্বর্ণের ব্রেসলেট, গলার চেইন, মোবাইল ফোন ও নগদ ১০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় ইসলাম আলী ও আহমদ আলী। সাংবাদিক মিঠুর চিৎকারে টাওয়ারের ব্যবসায়ীরা ছুটে যান। খবর পেয়ে সাংবাদিকরাও ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। আহত অবস্থায় মিঠুকে উদ্ধার করে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন আছেন। খবর পেয়ে রংমহল টাওয়ারের নিচে আসে কোতোয়ালি থানা পুলিশের একটি টিম। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন সাংবাদিক মিঠুর সহকর্মীরা।

এদিকে, এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে সিলেট জেলা প্রেসক্লাব। ঘটনার খবর পেয়ে একাত্তরের কথা কার্যালয়ে ছুটে আসেন প্রেসক্লাব সভাপতি ও সিনিয়র সাংবাদিক আল আজাদ এবং সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদসহ সাংবাদিক নেতারা। তারা তদন্তসাপেক্ষে এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার ও শাস্তি দাবি করেছেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২০২ বার

Share Button

Callender

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930