শিরোনামঃ-

» সিলেটের সুরমা নদী পরিদর্শন করেছেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

সিলেটবাসীকে বন্যা থেকে রক্ষা করতে পদক্ষেপ গ্রহনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর : পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কঃ
সিলেটবাসীকে বন্যার কবল থেকে রক্ষা করতে সবধরনের পদক্ষেপ গ্রহনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
শুক্রবার (২১ জুন) সকালে সিলেট নগরীর ক্বীণ ব্রিজ এলাকায় সুরমা নদী পরিদর্শনকালে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপি এ কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, আগামীতে সিলেট-সুনামগঞ্জের বন্যা কবলিত এলাকা কিভাবে সহনীয় পর্যায় নিয়ে আসতে পারি সে লক্ষে আমরা আলোচনা করেছি। ইতি মধ্যে সুরমা নদীর ১৫ কিলোমিটারের মধ্যে ১২ কিলোমিটার খনন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বন্যার পানি কমে গেলে বাকিটুকু খনন করা হবে।
এছাড়াও সামগ্রীক ভাবে সুরমা-কুশিয়ারা নদী খনন করবো। সুনামগেঞ্জর ছোট বড় ২০টি নদী আমরা খনন করবো। এ খনন কাজ করলে নদীতে উজান থেকে নেমে আসা পানির ধারন ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। এ লক্ষ্যে আমি স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডকে নির্দেশনা দিয়েছি। উজান থেকে যে পরিমাণ পানি আসে তার ধারন করার ক্ষমতা তৈরি করার জন্য যে সকল নদী ও খাল খনন করার দরকার সিলেটের প্রধান প্রকৌশলীকে নির্দেশনা দিয়েছি।
তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটের বন্যার খোঁজ-খবর রাখছেন। তিনি আমাকে সব সময় সজাগ থেকে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। আমার আসার আগে এই সিলেটের ত্রাণ ও দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রীকেও তিনি পাঠিয়েছেন।
সার্বক্ষণিক তিনি সিলেটের খবর রাখছেন এবং সিলেটবাসীকে বন্যার কবল থেকে রক্ষা করার যা যা করণিয় তা করার নির্দেশনা প্রদান করেছেন।
এসময় সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, জেলা প্রশাসক শেখ রাসেল হাসান, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী নূর আজিজুর রহমান, কাউন্সিলরবৃন্দ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী দীপক রঞ্জন দাস, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা সাজলু লস্কর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

» সিগারেট বাকি না দেয়ায় দোকানদারকে খুন; আটক ১

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
সুনামগঞ্জে সিগারেট বাকি না দেওয়ায় এমরান মিয়া (২২) নামে এক মুদি দোকানিকে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে ঘাতক লিটন মিয়াকে।
শুক্রবার (২১ জুন) সকাল ৮টার দিকে সুনামগঞ্জর তাহিরপুর-বাদাঘাট সড়কের পাশে হোসনারঘাট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
এমরান ওই গ্রামের সাজিদ মিয়ার ছেলে। হত্যার অভিযোগে উপজেলার হোসনারঘাট গ্রামের বিল্লাল মিয়ার ছেলে লিটন মিয়াকে (৩৪) আটক করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার হোসনারঘাট এলাকায় বসতঘরের ভেতর থাকা ছোট রুমে মুদির ব্যবসা করতেন এমরান মিয়া। একই গ্রামের লিটন মিয়া অনেকদিন থেকে ওই দোকান থেকে বাকিতে সিগারেটসহ নানা পণ্য সামগ্রী ক্রয় করেও বকেয়া পরিশোধে গড়িমসি করে আসছিলেন। বকেয়া টাকা পরিশোধ না করেই ফের শুক্রবার সাত সকালে ওই মুদি দোকান থেকে বাকিতে সিগারেট নিতে যান লিটন।
এমরান বাকিতে সিগারেট না দেওয়ায় প্রথমে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ক্ষুব্ধ হয়ে নিজ বাড়ি থেকে ধারালো দা নিয়ে এসে লিটন দোকানের ভেতরই কোপাতে থাকেন এমরানকে। এতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।
হত্যকাণ্ডের পর ভারতে পালিয়ে যাওয়ার পথে খবর পেয়ে বাদাঘাট ফাঁড়ির পুলিশ ঘাতক লিটনকে সকাল ৯টার দিকে আটক করে।
তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালর মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ হত্যকাণ্ডের বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

» সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে জামায়াতের সেক্রেটারী জেনারেলের ফুডপ্যাক বিতরণ

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

কঠিন দুর্যোগে জামায়াতের সর্বস্তরের জনশক্তি বন্যার্তদের পাশে রয়েছে : অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
জামায়াতের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া মো: গোলাম পরওয়ার বলেছেন, আকস্মিক ভয়াবহ বন্যায় প্লাবিত সুনামগঞ্জবাসীর এই দুর্যোগে আমরা মর্মাহত।
সুনামগঞ্জের বন্যাদূর্গত মানুষের সাহায্যে শুরু থেকেই জামায়াতের সর্বস্তরের জনশক্তি কাজ করছে।
সমাজের সামর্থবান মানুষকে বন্যার্তদের সাহায্যে এগিয়ে আসতে হবে। বিপদ মুসিবত সবই আল্লাহর পক্ষ থেকে আসে। তাই কঠিন বিপদে বেশী করে আল্লাহর সাহায্য কামনা করতে হবে।
তিনি বলেন, সরকারী ত্রাণ তৎপরতার অপ্রতুলতায় বন্যার্তদের দুর্ভোগ ক্রমশই বেড়ে চলেছে। বাংলাদেশের সবুজ ভুখন্ডে ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণের প্রত্যয়দীপ্ত মজলুম সংগঠন জামায়াত শুরু থেকে বন্যাদূর্গতদের পাশে দাঁড়িয়েছে।
সীমাহীন জেল-জুলুম-নির্যাতন, নেতৃবৃন্দকে ফাঁসি দিয়ে হত্যা, হামলা-মামলা স্বত্তেও জামায়াত আর্ত মানবতার কল্যাণে সর্বদা কাজ করে যাচ্ছে। সুনামগঞ্জের বন্যার্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে আমরা সুদুর ঢাকা থেকে সাধ্যমত উপহার সামগ্রী নিয়ে এসেছি। আমরা বাংলাদেশী, আমরা ভাই ভাই। তাই আপনাদের এই দুর্যোগপূর্ণ সময়ে দুরে থাকতে পারিনি।
বিবেকের টানে মানবতার আহ্বানে সাড়া দিতেই আপনাদের পাশে এসেছি। এই ফুডপ্যাক কোন করুনা নয় বরং ভাইয়ের প্রতি ভাইয়ের দায়িত্বের অংশ। বন্যার এই বিশাল ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠা হাওরপাড়ের মানুষের জন্য খুবই কঠিন। এ বিষয়ে সরকারের পাশাপাশি সামর্থবানদের এগিয়ে আসতে হবে। জামায়াত যে কোন দুর্যোগে অতীতেও জনতার পাশে ছিল, এখনো আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে ইনশাআল্লাহ।
তিনি শুক্রবার (২১ জুন) দিনভর সুনামগঞ্জ পৌরসভার মোহাম্মপুর এলাকার বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে, সদর উপজেলার লক্ষণশ্রী ইউনিয়নের হালুয়ারগাও গ্রামে, শান্তিগঞ্জ উপজেলার পাগলাবাজার ও ছাতক উপজেলার কালারুকা এলাকা সহ জেলার বিভিন্ন বন্যা কবলিত স্থান পরিদর্শন ও বন্যার্তদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী (ফুডপ্যাক) বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
তিনি দিনভর বন্যা কবলিত বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন এবং বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সহমর্মিতা প্রদান করেন। একই সাথে জামায়াতের পক্ষ থেকে পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
সুনামগঞ্জ জেলা জামায়াতের আমীর উপাধ্যক্ষ মাওলানা তোফায়েল আহমদ খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পৃথক ফুডপ্যাক বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জামায়াতের কেন্দ্রীয় সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের এবং কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট মহানগরী আমীর মুহাম্মদ ফখরুল ইসলাম।
বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, সুনামগঞ্জ জেলা নায়েবে আমীর এডভোকেট শামস উদ্দীন, সেক্রেটারি মমতাজুল হাসান আবেদ, বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুস সালাম আল মাদানী, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান বদরুল কাদির শিহাব, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির সিলেট মহানগর সভাপতি শরীফ মাহমুদ, সাবেক সভাপতি মাওলানা মাহমুদুর রহমান দিলাওয়ার, সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রশিবির সভাপতি মনিরুজ্জামান পিয়াস, জামায়াত নেতা এডভোকেট রেজাউল করীম, সুনামগঞ্জ পৌর জামায়াতের আমীর ইঞ্জিনিয়ার নোমান আহমদ, সদর উপজেলা আমীর এডভোকেট আবুল বাশার, ছাতক উপজেলা আমীর মাওলানা আকবর আলী, শান্তিগঞ্জ উপজেলা আমীর হাফিব আবু খালেদ ও জামায়াত নেতা মাওলানা মখছুছুর রহমান প্রমূখ।

» আশ্রয় কেন্দ্রে মহানগর বিএনপির খাবার বিতরণ

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

ডা. জোবাইদা রহমান বাংলাদেশের প্রয়োজন সর্বদা সচেষ্ট : ইমদাদ চৌধুরী

নিউজ ডেস্কঃ
বৃহত্তর সিলেটের কৃতি সন্তান, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সুযোগ্য সহধর্মিণী ও প্রখ্যাত চিকিৎসক ডা. জোবাইদা রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে সিলেট মহানগর বিএনপির উদ্যোগে বন্যার্তদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে।
শুক্রবার (২১ জুন) বাদ জুম্মা নগরীর বিভিন্ন অশ্রয় কেন্দ্রে বন্যার্ত অসহায় মানুষের মাঝে রান্না করা খাবারের বিতরণকালে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ হোসেন চৌধুরী বলেন, লন্ডন প্রবাস জীবনে থেকেও ডা. জোবাইদা রহমান বাংলাদেশের প্রয়োজন সর্বদা সচেষ্ট।
দেশের প্রত্যেক দূর্যোগময় মুহুর্তে যে ভাবে জাতীয়তাবাদী দল মানুষের পাশে দাঁড়াও, ঠিক সেই ভাবে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের স্বাস্থ্য সেবা ও বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থাসহ দূর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ডা. জোবাইদা রহমান দলের সকল নেতাকর্মীদের দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন। তিনি জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সারাদেশে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের সমন্বয়ে স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের জন্য খন্ড খন্ড মেডিকেল ক্যাম্প পরিচালনায় জনস্বার্থে ভূমিকা রাখছেন।
তিনি মরহুম মাহবুব আলী ফাউন্ডেশন মাধ্যমে জনস্বার্থে ব্যাপক অবদান রেখে যাচ্ছেন। তিনি স্বামীর ছায়াসঙ্গী হিসেবে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখার পাশাপাশি শ্রদ্ধাভাজন শ্বাশুড়ি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আপোসহীন নেত্রী, তিনবারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার যাবতীয় পরামর্শ তিনি সুদূর পরবাসে থেকে দায়িত্বশীলতার সঙ্গে পালন করে যাচ্ছেন।
আশ্রয় কেন্দ্রে রান্না করা খাবার প্রদানকালে আরো উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সাবেক সদস্য মুর্শেদ আহমদ মুকুল, মতিউল বারী খুর্শেদ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক মাহবুবুল হক চৌধুরী, আক্তার রশিদ চৌধুরী, শোয়াইব আহমেদ শুয়েব, আব্দুর রহিম মল্লিক, নাজিম উদ্দিন, লুৎফুর রহমান মোহন,  খায়রুল ইসলাম খায়ের, মো. বাচ্চু মিয়া, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মির্জা সম্রাট হোসেন, এডভোকেট ওবাদুর রহমান ফাহমি, রফিকুল ইসলাম রফিক, সৈয়দ রহিম আলী রাশু, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক দেলওয়ার হোসেন দিনার, সাব্বির আহমদ, রুবেল বক্স, জালাল উদ্দীন শামীম, এমদাদুল হক স্বপন, আব্দুল হাসিম জাকারিয়া, জম জম বাদশাহ, সোলেমান হুসেন সুমন, দুলাল আহমদ, আলী হায়দার মজনু, শাহীন আহমদ, হারুনুর রশিদ হারুন, ইফতেখার আহমেদ পাবেল, ফরহাদ আহমদ, আকবর হোসেন কায়সার, মতিউর রহমান শিমুল, শহিদুল ইসলাম সানি, মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল ইসলাম, আক্তার হোসেন, আনাস মাহফুজ।

» প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিনিয়ত সিলেটের বানভাসি মানুষের খবর রাখছেন : প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

ওসমানীনগর প্রতিনিধিঃ

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী এমপি বলেন, বন্যা, খরা, বৃষ্টি এইগুলো প্রাকৃতিক দুর্যোগ। প্রাকৃতিক নিয়মে এগুলো হয় তাই আমরা চাইলেও কেউ আটকাতে পারবো না কিন্তু তার মোকাবেলা করতে পারি।

সকল দূর্যোগের মোকাবেলা করে আমাদের বেঁচে থাকতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও নির্দেশনায় আমরা অনেকগুলো প্রাকৃতিক দুর্যোগ সফলভাবে মোকাবেলা করেছি।

তিনি শুক্রবার (২১ জুন) দিনব্যাপী ওসমানীনগর উপজেলার বুরুঙ্গা, তাজপুর ও গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্র পরিদর্শন ও বানভাসি মানুষের মধ্যে ত্রাণ, নগদ অর্থ এবং রান্না করা খাবার বিতরণকালে একথাগুলো বলেন।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রতিনিয়ত সিলেটের বানভাসি মানুষের খোঁজখবর নিচ্ছেন। পর্যাপ্ত ত্রাণ বরাদ্দের পাশাপাশি আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন যেন আমরা প্রতিটি বন্যার্ত পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা পৌঁছে দেই। আমরা স্থানীয় প্রশাসন, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ প্রত্যেকটা আশ্রয়কেন্দ্রে এবং ঘরে ঘরে ত্রাণ সহায়তা ও রান্না করা খাবার পৌঁছে দিচ্ছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অনুপমা দাস, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলু, সহ-সভাপতি আলাউর রহমান আলা, যুগ্ম সম্পাদক ও তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অরোনদয় পাল ঝলক, সাংগঠনিক সম্পাদক লুৎফুর রহমান, বুরুঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আখলাকুর রহমান, সাবেক চেয়ারম্যান খালেক আহমেদ, বুরুঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি শফিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা শাহানুর মিয়া, উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দিলদার আলী, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মন্নান, ওসমানীনগর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি লেবু মিয়া, গোয়ালাবাজার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হেলাল আহমদ মেম্বার, দপ্তর সম্পাদক ফয়জুল হক, দেলওয়ার আহমদ মেম্বারসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের অসংখ্য নেতৃবৃন্দ।

» নদী খনন না হওয়া অপরিকল্পিত নগরায়নের কারণে সিলেটের মানুষ পানিবন্দী : ডা. রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

নিউজ ডেস্কঃ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সিলেট মহানগর সহ-সভাপতি ডা. রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ বলছেন, বিগত দিনে সিলেটে প্রচুর বৃষ্টিপাত হলেও নগরবাসী এভাবে পানিবন্দি হয়নি। বর্তমানে প্রকৃতির সাথে মানুষের সৃষ্টি একত্রিত হওয়ায় আজ নগরবাসীর দুর্ভোগ চরমে। সুরমা নদী সহ সিলেটের একটি নদীও খনন করা হয়নি।

অপরিকল্পিত নগরায়ন ও দুর্বল ট্রেনেজ ব্যবস্থার জন্য নদীর পানি উপচে পড়েছে। এজন্য দায়ী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। প্রায় আট লক্ষ মানুষ পানিবন্দী অবস্থায় সিটির মধ্যে ৪২টি ওয়ার্ড এর মধ্যে ২৩টি ওয়ার্ড প্লাবিত অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পানিতে নিমজ্জিত। এমতাবস্থায় পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য আমাদেরকে হতাশ করেছে।

তিনি বলেছেন আমাদের করার কিছুই নেই এটা নিয়েই বসবাস করতে হবে যা খুবই দুঃখজনক। ডা. আরও বলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বিগত দিনে করোনাকালীন ও ২০২২ এর বন্যায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর হযরত পীর সাহেব চরমোনাই’র নির্দেশে আমরা নগরবাসীর পাশে থেকে যে সহযোগিতা ভবিষ্যতেও তা থাকবে ইনশাল্লাহ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সিলেট মহানগরের উদ্যোগে শুক্রবার (২১ জুন) বাদ জুমুয়া নগরীর ২৩নং ওয়ার্ডের মাছিমপুর এলাকায় পানিবন্দী মানুষের মধ্যে জরুরী ভিত্তিতে শুকনা খাবার বিতরণকালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

এ সময় সুরমা নদীর পাশে থাকার কারণে শত শত পরিবার পানিবন্দী রয়েছে। তাঁদের খোজ খবর নেয়া সহ কয়েকশ পরিবারের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ করছেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সিলেট মহানগর সহ-সভাপতি ডা. রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ, মহানগর স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মো. মনির হোসাইন, কোতোয়ালী থানা শাখার সভাপতি মো. আনোয়ার হুসাইন, সহ সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর মিয়া, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইয়াসিন আহমদ সহ থানা ওয়ার্ড নেতৃবৃন্দ।

» সিলেটের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় রেড ক্রিসেন্ট চেয়ারম্যান

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তায় শুধু বিদেশী সাহায্য নয় দেশের বিত্তবানদেরকেও এগিয়ে আসতে হবে : রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. উবায়দুল কবীর চৌধুরী

নিউজ ডেস্কঃ

সিলেটের চলমান বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শণ, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময়ের মাধ্যমে ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণের লক্ষ্যে বাস্তব ধারণা অর্জনের জন্যে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. উবায়দুল কবীর চৌধুরী সিলেট সফরে এসেছেন।

সিলেটে পৌঁছে শুক্রবার (২১ জুন) সকালেই তিনি কানাইঘাট ও কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল পরিদর্শন করেন।

সফরকালে তাঁর সাথে ছিলেন, আইএফআরসি-এর বাংলাদেশের কান্ট্রি ডেলিগেশন আলবের্তো বোকেইনাগারা, রেডক্রিসেন্টের ডিজাস্টার রেসপন্স বিভাগের পরিচালক মো. মিজানুর রহমান।

রেডক্রিসেন্ট চেয়ারম্যান সিলেট এসে পৌঁছলে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির জাতীয় সদর দপ্তর ঢাকা-এর ব্যবস্থাপনা পর্ষদ সদস্য মস্তাক আহমদ পলাশ, রেডক্রিসেন্ট সিলেট ইউনিটের ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌস আহমদ চৌধুরী রুহেল, সিলেট ইউনিটের সেক্রেটারি মো. আবদুর রহমান জামিল, কার্যকরী পরিষদ সদস্য সোয়েব আহমদ, বৃন্দাবন চন্দ্র মন্ডল, যুব প্রধান পলাশগুন তাঁকে স্বাগত জানান এবং চেয়ারম্যানের সাথে বন্যাগ্রস্থ এলাকা শুকনো খাবার বিতরণ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়া রেডক্রিসেন্টের উদ্যোগে পানি বিশুদ্ধ করে স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মো. উবায়দুল কবীর চৌধুরী মতবিনিময়কালে বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তার জন্যে শুধু বিদেশী সাহায্যের উপর নির্ভর না করে দেশের বিত্তবানদেরকেও ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তায় এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বন্যায় সিলেটের ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে বাস্তব ধারণা নেবার জন্যে আমি সিলেট এসেছি। আমি দেখেছি কিছু কিছু জায়গায় পানি নেমে গেছে, কিন্তু বন্যা যে ক্ষতি করে গেছে তা নিরসনে আমাদেরকে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে।

এজন্যে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ প্রয়োজন, যাতে করে ক্ষতিগ্রস্থরা তাদের প্রয়োজনীয় কাজটি করতে পারে। একইভাবে ক্ষতিগ্রস্থদের ঘরবাড়ি মেরামত, নির্মাণেরও ব্যবস্থা করতে হবে।

আইএফআরসি-এর বাংলাদেশের কান্ট্রি ডেলিগেশন আলবের্তো বোকেইনাগারা বলেন, বন্যায় সিলেটের মানুষের ক্ষয়ক্ষতি দেখে আমি খুব ব্যথিত। ক্ষতিগ্রস্থদের প্রয়োজনের সর্বোচ্চ দিকটি বিবেচনা করে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণের চেষ্টা করবো।

» নগরীর তেররতনে জেলা ওয়াকার্স পার্টির শুকনো খাবার বিতরণ

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

নিউজ ডেস্কঃ

বাংলাদেশ ওয়াকার্স পার্টি সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে নগরীর তেররতন এলাকায় পানিবন্দী মানুষের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার (২১ জুন) বিকেলে নগরীর পানিবন্দী মানুষের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করেন নেতৃবৃন্দ।

শুকনো খাবার বিতরণকালে নেতৃবৃন্দরা বলেন, আমরা সর্বদাই অসহায় মানুষ গুলোর জন্য কাজ করি, পানিবন্দী মানুষের দুঃখ দূর্দশার কথা চিন্তা করে সামান্য খাবার উপহার দিচ্ছি। সরকার সহ প্রতিটি সামাজিক সংগঠনকে আহবান জানিয়ে তিনি বলেন মানবিক হৃদয় নিয়ে এসব মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এখনি সময়।

শুকনো খাবার বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য দীনবন্ধু পাল, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য হিমাংশু মিত্র, সদস্য আলী আহসান। এছাড়াও বাংলাদেশ ওয়াকার্স পার্টি সিলেট জেলা শাখার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

» মিফতাহ সিদ্দিকীকে ২৬নং ওয়ার্ড বিএনপির অভিনন্দন

Published: ২১. জুন. ২০২৪ | শুক্রবার

নিউজ ডেস্কঃ

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটিতে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মনোনীত হওয়ায় মিফতাহ্ সিদ্দিকীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন সিলেট নগরীর ২৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপি নেতৃবৃন্দ।

শুক্রবার (২১ জুন) একটি প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে ২৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আখতার রশীদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক এম এ মন্নান এ অভিনন্দন জানান।

অভিনন্দন বার্তায় নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের হাতকে শক্তিশালী করতে সিলেটে বিএনপির কার্যক্রম আরো বেগবান করতে মিফতাহ্ সিদ্দিকী সক্রিয় ভূমিকা পালন করবেন বলে আমরা বিশ্বাস করি।

তাঁরা বলেন, সততা, নিষ্ঠা, দলের প্রতি গভীর ভালোবাসা, দৃঢ় মনোবল এবং অসাধারণ নেতৃত্বের অধিকারী বিএনপি নেতা মিফতাহ সিদ্দিকী, দেশ ও জাতির কল্যাণে, গনতন্ত্র, মানবাধিকার, আইনের শাসন এবং ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার চলমান আন্দোলনকে আরো বেগবান করতে অতীতের ন্যায় কাজ করে যাবেন। পাশাপাশি নেতৃবৃন্দ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

» জি কে গউছ ও মিফতাহ্ সিদ্দিকীকে ১১নং ওয়ার্ড বিএনপির অভিনন্দন

Published: ২০. জুন. ২০২৪ | বৃহস্পতিবার

নিউজ ডেস্কঃ

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক পদে জি কে গউছ ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মিফতাহ্ সিদ্দিকী মনোনীত হওয়ায় অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ১১নং ওয়ার্ড বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) এক বিবৃতিতে ১১নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি সভাপতি শেখ মোঃ কবির আহমদ, সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ মো. তাইফ (তায়েফ) সাংগঠনিক সম্পাদক মিনহাজুর রহমান রাসেল এ অভিনন্দন জানান।

নেতৃবৃন্দ বলেন, অতীতে এই নেতৃবৃন্দ তাঁদের উপর অর্পিত দায়িত্ব সুচাাংভাবে পালন করে সফল হয়ে আজকে জাতীয় রাজনীতিতে নেতৃত্ব লাভ করেছেন। তাঁরা ছাত্র রাজনীতিতে নেতৃত্বের সফল সাক্ষর রেখেছেন। বিএনপির রাজনীতিতে জেল, জুলুম, হুলিয়া মাথা নিয়ে রাজপথ সাহসী নেতৃত্ব দিয়েছেন। আগামী দিনে চলমান আন্দোলন, গনতন্ত্র প্রতিষ্টা ও দেশের মানুষের মুক্তির আন্দোলনে সাংগঠনিক সম্পাদক জিকে গউছ ও সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মিফতাহ্ সিদ্দিকী মুখ্য ভূমিকা পালন করবেন। পাশাপাশি ১১নং ওয়ার্ড বিএনপির নেতৃবৃন্দ,বিএনপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে এই দুই নেতাকে নতুন দায়িত্ব দায়িত্ব প্রদান করায় অভিনন্দন জানান৷

উল্লেখ্য, বিগত দিনে জিকে গউছ বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ও মিফতাহ্ সিদ্দিকী ছাত্রদলের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা ও সিলেট মহানগর বিএনপির সাবেক সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

» যেকোন দুর্যোগময় সময়ে সিলেট মহানগর যুবলীগ মানুষের পাশে রয়েছে : আলম খান মুক্তি

Published: ২০. জুন. ২০২৪ | বৃহস্পতিবার

নিউজ ডেস্কঃ

সিলেটে  বন্যায় পানিবন্দি মানুষের মাঝে  অতীতের ন্যায় বিশুদ্ধ পানি ও শুকনো খাবার বিতরণ অব্যাহত রেখেছে সিলেট মহানগর যুবলীগ।
বৃহস্পতিবার  (২০ জুন) দুপুর ১টায় নগরীর উপশহর এলাকার বিভিন্ন বাসা বাড়িতে ঘরে ঘরে পানিবন্দি মানুষের মাঝে বিশুদ্ধ পানি বিতরণ করা হয়েছে।
বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ ও সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল এমপির নির্দেশে সিলেট মহানগর যুবলীগের সভাপতি আলম খান মুক্তি  যুবলীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড ও বিভিন্ন এলাকায় বিশুদ্ধ পানি, শুকনো খাবার  নিয়ে  বন্যা কবলিত মানুষের পাশে  মানবতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।
ত্রাণ বিতরণকালে সিলেট মহানগর যুবলীগের সভাপতি আলম খান মুক্তি বলেন, যুবলীগ সবসময় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের সঙ্কটকালীন সময়ে যুবলীগের অবদান ইতিহাসের পাতায় পাতায়।
তিনি বলেন, সিলেটে বন্যায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন অনেক মানুষ, পানিতে তলিয়ে গেছে অনেক এলাকা, আমরা সিলেট মহানগর যুবলীগ অতীতের ন্যায় পানিবন্দি মানুষের মাঝে শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানি সহ প্রয়োজনীয় ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছি।
তিনি বলেন, সিলেটে যেকোনো দুর্যোগময় সময়ে সিলেট মহানগর যুবলীগ মানুষের পাশে ছিলো আগামীতে ও থাকবে। তিনি পানিবন্দি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
এসময়  উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এমদাদ হোসেন ইমু, দপ্তর সম্পাদক সাকারিয়া হোসেন সাকির, সহ সম্পাদক মুনসুর হাসান চৌধুরী সুমন, আমিনুল ইসলাম আমিন, সদস্য এমদাদুল হক উবেদ, মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।

» পানিবন্দী মানুষের পাশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা রয়েছে : মো. আজম খাঁন

Published: ২০. জুন. ২০২৪ | বৃহস্পতিবার

নিউজ ডেস্কঃ

সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও ২৭নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মো. আজম খাঁন বলেছেন, প্রতিটি দূর্যোগে সাধারন মানুষের পাশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা রয়েছে। এই কয়েকদিনের ভিতরে পরপর দুইবার বন্যার কারনে সাধারণ মানুষ দূর্ভোগের শিকার হয়েছেন।

বন্যার শুরু থেকেই ২৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা কাজ করে যাচ্ছেন। আমাদের ওয়ার্ডের দুঃখ, কষ্টের কথা জেনে মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী ঈদ উল আজহার পরের দিনই ওয়ার্ড পরিদর্শন করে কার্যকর ব্যবস্থা নিয়েছেন। প্রতিদিন শুকনো খাবার, রান্না করা খাবার, গুড়, চিড়া, বিশুদ্ধ পানি দিয়ে পানিবন্দী মানুষকে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

তাছাড়া প্রতিটি ওযার্ডে আশ্রয় কেন্দ্র খুলে পানিবন্দী মানুষকে আশ্রয় দিয়েছেন। আমরা সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর পক্ষ থেকে খাবার বিতরণ করছি।

তিনি সকাল ১১টার সময় নগরীর ২৭নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ কুশিঘাট ও ষাটঘরে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে খাদ্য বিতরণকালে এই কথাগুলো বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ছামিরুন নেছা, ২৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ছয়েফ খান, সাধারণ সম্পাদক গোলজার আহমদ জগলু, সাবেক সভাপতি নিজাম উদ্দিন ইরান, সাবেক সহ সভাপতি আব্দুল জলিল ময়না, আওয়ামীলীগ নেতা সোহেল আহমদ, জুয়েল আহমদ, ময়নুল হোসেন, এনামুল হক, বিনেশ কর দুলু, জয়নাল আহমদ জানু, বাবু ধন মিয়া, ২৭নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শুভ রাজ, সাধারণ সম্পাদক নেওয়াজ হোসেন প্রমুখ।

Callender

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930