শিরোনামঃ-

» বিশ্বনাথে ছিনতাইকারীর হাতে যুবক হত্যা

প্রকাশিত: ২১. মার্চ. ২০২১ | রবিবার

বিশ্বনাথ থেকে মোহাম্মদ আখতার হুসাইনঃ

সিলেটের বিশ্বনাথে ছুরিকাঘাতে ইমরান আহমদ সায়মন (২৪) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। তিনি উপজেলার জানাইয়া দক্ষিন মসুলা গ্রামের মছলন্দর আলীর পুত্র।

শনিবার (২০ মার্চ) রাত ১০টা ৩০ মিনিটের দিকে বিশ্বনাথ পৌর শহরের রোডে (খুদেজা মঞ্জিলের নিকটস্থ রাস্তা) এই ঘটনাটি ঘটে।

ধারালো অস্ত্র দিয়ে বুকের বাম পাশে একাধিক আঘাত করা হলে অধিক রক্তক্ষরণের ফলে ঘটনাস্থলেই মারা যান সায়মন।
এই সময় সজ্ঞহীন হয়ে যায় সাথে থাক সায়মনের চাচাতো ভাই লায়েক ও ফয়েজ।
ঘটনার খবর পেয়ে তার প্রতিবেশী আব্দুল কাদির তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উদ্ধার করেন, সায়মনের প্রাণহীন দেহ এবং সাথে সাথে নিকটস্থ ডায়গনস্টিক সেন্টারের দ্বারস্থ হন এবং সেখানেই কর্মরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন।
মরহুম সায়মন  পেশায় একজন ব্যবসায়ী, সবার পরিচিত বিশ্বনাথ জানাইয়া ফুটবল মাঠের পাশেই তাঁর একটি মুদি দোকান রয়েছে।
তথ্যসূত্রে জানা যায়, চাচাতো ভাই লায়েক ও ফয়েজকে সাথে নিয়ে বিশ্বনাথ বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন সায়মন।
তারা বিশ্বনাথ উপজেলা ভবন রোডে  খুদেজা মঞ্জিল পেরিয়ে নির্জন স্থানে আসা মাত্রই ৩/৪ জন ছিনতাইকারী হামলায় চালায় সায়মনের উপর। হাতাহাতির একপর্যায়ে ছিনতাইকারী  সায়মনের বুকের বাম ধারালো ছুরিদিতে আঘাত করে পালিয়ে যায়। যার ফলস্রুতে সাথে সাথেই মৃত্যু হয় সায়মনের। তবে যারা হামলা করেছে তাদেরকে চিনতে সক্ষম হয়েছেন সায়মমের সাথে থাকা লায়েক ও জয়েজ। হামলাকারীরা জানাইয়া গ্রামেরই বাসিন্দা বলে জানান তাঁরা।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিশ্বনাথ থানার ওসি শামীম মূসা বলেন, প্রাথমিক তদন্ত করে জানা গেছে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতের কারণে অধিক রক্তক্ষরণে সায়মনের মৃত্যু হয়েছে।
হামলাকারিদের এবং এর সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় খুব দ্রুতই আনা হবে বলে জানিয়েছেন ওসি শামীম মূসা।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩১৬ বার

Share Button

Callender

July 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031