শিরোনামঃ-

» সরকার বন্যায় আক্রান্ত মানুষের পাশে না দাড়িয়ে তামাশা করছে : মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

প্রকাশিত: ২৩. জুন. ২০২২ | বৃহস্পতিবার

স্টাফ রিপোর্টারঃ

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন সিলেটে ভয়াবহ বন্যায় সরকারের পক্ষ থেকে তেমন সাহায্য সহযোগিতা নেই, যা ঘোষণা করা হয়েছে তা খুবই অপ্রতুল। সিলেটের এই বিপদে সরকারের ভূমিকা তামাশা ছাড়া আর কিছু নয়।

বেসরকারি, প্রবাসি ও ব্যক্তি সাহায্য সহযোগিতা সবচেয়ে বেশি করা হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। সিলেটে বন্যায় প্রথম দিন থেকে নেতাকর্মীরা সাহায্য সহযোগিতা করে আসছে।

প্রতিদিন বিএনপির নেতাকর্মীরা সিলেট নগরী ও জেলার প্রত্যন্ত জায়গায় খাদ্য সামগ্রী নিয়ে সাধারণ মানুষের হাতে তুলে দিচ্ছে। বিএনপির এই কার্যক্রম তাদের চোখে পড়ে না কারন তারা জনগণ থেকে জনবিচ্ছিন্ন। এই জনবিচ্ছিন্ন সরকার স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় চরম ব্যার্থতার পরিচয় দিয়েছে।

তিনি বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) বিকাল সাড়ে ৩টার সময় সিলেট নগরীর ১০ নং ওয়ার্ডে খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে এই কথাগুলো বলেন।

সিলেট মহানগর বিএনপির আহবায়ক আব্দুল কাইয়ুম জালালি পংকী’র সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মিফতাহ্ সিদ্দিকী’র পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও বিএনপির জাতীয় ত্রান ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির আহবায়ক ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, সদস্য সচিব ইয়াছিন আলী, বিএনপি চেয়ারপার্সন এর উপদেষ্টা ডঃ এনামুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ডাঃ শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এড. হাবিবুর রহমান হাবিব, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, এড. রোকসানা বেগম শাহনাজ, সৈয়দ মইন উদ্দিন সোহেল, সদস্য মাহবুব চৌধুরী, ১০নং ওয়ার্ড বিএনপির আহবায়ক সাহাবুদ্দিন আহমদ, ১১নং ওয়ার্ড বিএনপির আহবায়ক খসরুজ্জামান, ১২নং ওয়ার্ড বিএনপির আহবায়ক সাব্বির আহমদ বাচ্চু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব আজিজুল হোসেন আজিজ, সিলেট জেলা যুবদলের সদস্য সচিব মকসুদ আহমদ সিলেট জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি সুদীপ জ্যোতি এ্যাষ, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দিনার, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি আহসান, মহানগর শ্রমিকদলের আহবায়ক আবদুল আহাদ প্রমুখ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬ বার

Share Button

Callender

June 2022
M T W T F S S
« May    
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930