শিরোনামঃ-

» বর্ণাঢ্য আয়োজনে ওসমানী হাসপাতালে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস উদযাপন

প্রকাশিত: ১২. মে. ২০২৪ | রবিবার

ডেস্ক নিউজঃ
বর্ণাঢ্য আয়োজনে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উদযাপিত হয়েছে ‘আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস ২০২৪’ ও নার্সিং এর প্রবক্তা ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেল এর ২০৪তম জন্মবার্ষিকী।

রবিবার (১২ মে) সকালে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নার্সদের উদ্যোগে দিবসটি উদযাপন করা হয়।

সকাল ১০টায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নার্সিং কর্মকর্তা শামীমা নাসরিন ও নার্সিং কর্মকর্তা অরবিন্দু দাসের নেতৃত্বে হাসপাতাল প্রাঙ্গন থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। ফ্লোরেন্স নাইটিঙ্গেলের সম্মানে শোভাযাত্রার সামনে ‘লেডি উইথ দ্যা ল্যাম্প’র ভূমিকা পালন করেন ওসমানী হাসপাতালের নার্সিং কর্মকর্তা ইসরাত জাহান ইলা।

শোভাযাত্রাটি হাসপাতালের সামনে থেকে বের হয়ে মেডিকেল এলাকা প্রদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে শেষ হয়। পরে নার্সেস দিবসের প্রতিপাদ্যখচিত ফেস্টুন ও ব্যালুন মুক্ত আকাশে উড়ান অতিথিরা। এছাড়াও নার্সেস দিবসের অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল কেক কাটা ও আলোচনা সভা।

অনুষ্ঠানে উপ-সেবা তত্ত্বাবধায়ক ফেরদৌসী আক্তার বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ও মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. শিশির রঞ্জন চক্রবর্তী। এসময় প্রাধান অতিথিরর বক্তব্যে ডা. শিশির রঞ্জন চক্রবর্তী বলেন স্বাস্থ্যসেবার মান আরও বৃদ্ধি করতে বর্তমান সরকার নার্সিং পেশাকে এগিয়ে নিতে কাজ করছে। নার্সিং পেশ অত্যন্ত মহৎ ও সেবাধর্মী একটি কাজ।

এ পেশাকে গুরুত্ব দিয়ে বর্তমান সরকার নার্সদেরকে দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদায় উন্নীত করেছেন। চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি রোগীদের সাথে নার্সদের ভালো ব্যবহার, যোগাযোগ ও নিয়মিত উপস্থিতি স্বাস্থ্য বিভাগের সম্মানটুকুও বৃদ্ধি পাবে। কারণ ভালো ব্যবহার পেলে রোগীরা অর্ধেক সুস্থতা অনুভব করে। রোগীদের প্রয়োজনীয় সেবা প্রাপ্তি দেশের অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা রাখবে। এজন্য সবাইকে আরও আন্তরিক হয়ে রোগীদেরকে সেবা দিতে হবে।

তিনি বলেন, দেশে সরকারী-রেসরকারী অনেক নার্সিং ইনস্টিটিউট রয়েছে। সেগুলো থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে নার্সগণ রোগীদের সেবার উদ্দেশ্যে হাসপাতাল-ক্লিনিকে চাকুরী করছে। তাই উন্নত চিকিৎসা-সেবা নিশ্চিত করতে ডাক্তার-নার্স সহ আমাদেরকে সেবার মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে।

সেবার মানসিকতা ও আন্তরিকতা নিয়ে নার্সদের দায়িত্ব পালন করতে হবে। সবসময় রোগীর পাশে থাকতে হবে। রোগীর সমস্যাকে নিজের সমস্যা মনে করে নিজের অবস্থান থেকে আন্তরিকভাবে সেবা দিতে হবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের উপ-পরিচালক সৌমিত্র চক্রবর্তী, সহকারী পরিচালক (অর্থ ও ভান্ডার) ডা. মাহবুবুল আলম, সিনিয়র স্টোর অফিসার ডাঃ জলিল কায়সার খোকন, সিনিয়র স্টাফ নার্স গোলাম রাব্বানী, সরলতা টুড, নাহিমা আক্তার।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র স্টাফ নার্স মোঃ জসীম উদ্দিন সরকার, সিনিয়র স্টাফ নাস সোহেল আহমদ।

এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নাজমা আক্তার, নাহিমা আক্তার, পাপ্পু চন্দ্র চন্দ, দিলু তালুকদার, সাফিনা আক্তার, আসাদ নূর তারেক, লোকমান হোসেন খান, অনুপ কুমার চৌধুরী, পলাশ কুমার লস্কর, সাব্বির আহমদ তাপাদার, ইমরান আহমদ তাপাদার, দিলু তালুকদার, তুর্জয়, মোহন, মোঃ নাজির আলম, সোহেল আহমদ, কিবিরিয়া খোকন, মিলন কুমার সিংহ, তাজমহল মিয়া, এনায়েত আল-আমিন, সুমন চন্দ্র চন্দ, মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, গোলাম রাব্বানী, রিপন কান্তি রায়, সাব্বির আহমদ তাপাদার, পলাশ কুমার লস্কর, গোলাম মোস্তফা, রেখা রানী, মোঃ আব্দুল খালিক, আসমা আক্তার খানম, আমির হোসেন, টিংকু আচার্য্য, তনয় কুমার সাহা, মোস্তাক আহমদ, মোঃ কামরুল ইসলাম, জিয়া, পার্থ সারথী, সৌরভ পাল, শান্তচৌধুরী, সানি, মোঃ আব্দুল খালিক, মোঃ তারিক হাসান, তানভীর আহমদ, সমীর চন্দ্র দাস, অনুপম সিংহ, লোকমান হোসেন, শান্ত চৌধুরী প্রমূখ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪৭ বার

Share Button

Callender

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930