শিরোনামঃ-

» মশা নিধনের দাবিতে সিসিক মেয়র বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান

প্রকাশিত: ০২. এপ্রিল. ২০২৪ | মঙ্গলবার

মশারী নিয়ে প্রতিকী শোভাযাত্রা আগামী ২৪ এপ্রিল বুধবার

ডেস্ক নিউজঃ

সিলেট কল্যাণ সংস্থা, সিকস’র অঙ্গ সংগঠন সিলেট বিভাগ যুব কল্যাণ সংস্থা ও সিলেট প্রবাসী কল্যাণ সংস্থার যৌথ উদ্যোগে মঙ্গলবার (২ এপ্রিল ২০২৪) বেলা সাড়ে ১১টায় সিলেট মহানগরীর মশা নিধনে মাঠ পর্যায়ে বাস্তবভিত্তিক দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে মশার উপদ্রব লাঘবে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহনের দাবিতে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে জাতীয় যুব দিবস-২০১০ এ জাতীয় যুব পুরস্কার শ্রেষ্ঠ যুব সংগঠক পদকপ্রাপ্ত সংস্থাগুলোর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সিলেট কল্যাণ সংস্থার কার্যকরী কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ এহছানুল হক তাহেরের নেতৃত্বে স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন সিলেট কল্যাণ সংস্থার কার্যকরী কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক ও সিবিযুকস’র মহানগর কমিটির সভাপতি হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী, সিবিযুকস’র বিভাগীয় কমিটির আলহাজ্জ মুখতার আহমেদ তালুকদার, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সাজ্জাদ খান, সিবিযুকস’র সিলেট জেলা কমিটির সভাপতি হাজী মোঃ আশরাফ উদ্দিন, সহ-সভাপতি তোফায়েল আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহফুজ আল গালিব, সিবিযুকস’র মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম শিতাব, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ রাসেল, সমাজ সচেতন নাগরিকদের মধ্য থেকে বিজিত চন্দ ও মোঃ আলেছ আহমদ। উল্লেখ্য, ৩১ মার্চ রবিবার সিলেটে শিলা বৃষ্টি ও ঝড় তুফানের কারণে সাংগঠনিক অনেক সদস্যদের বাসা বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে উপস্থিত সদস্যদের মতামদের ভিত্তিতে ৩ এপ্রিল মশারী নিয়ে শোভাযাত্রার তারিখ পরিবর্তন করে ২৪ এপ্রিল বুধবার নির্ধারণ করা হয়।

স্মারকলিপির বিষয়বস্তুঃ সিলেট মহানগরীতে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় ও অব্যাহত রাখায় আপনাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। বর্তমান সময়ে আমরা মহানগরবাসী একটি অন্যতম বিষয়ে খুবই যন্ত্রণায় দিন অতিবাহিত করছি। দিনে ও রাতে সেই যন্ত্রণা আমাদের পিছু ছাড়ছে না, আর তা হচ্ছে মশা। সন্ধ্যা হলেই বাসার দরজা-জানালা বন্ধ করেও মশার উপদ্রব থেকে রেহাই পাচ্ছি না আমরা নগরবাসী। বিশেষ করে মশার যন্ত্রণায় বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। অনেক বাসার শিক্ষার্থীকে মশারীর ভেতর বিছানায় বসে পড়াশোনা করতে হয়। মাঝেমধ্যে কোনো কোনো এলাকায় মশক নিধনে ওষুধ ছিটানো হলেও মরছে না মশা। মশা নিধনে সাধারণ জনগণের অনেক টাকা অকারণে অপচয় করতে হয়। সে বিষয়ে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদাসীনতা ও আইওয়াশ আমরা নগরবাসীর কাছে সবসময় দৃশ্যমান।

মশা নিধনে বর্ষার শেষের দিকেই কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের প্রয়োজন ছিল। কিন্তু শীত শেষে বসন্ত এলেও মশার যন্ত্রণায় নগরবাসী অস্থির অবস্থায় দিন অতিবাহিত করছেন। মশা নিধনের জন্য নগরবাসী স্বাস্থ্য পরিপন্থি বিভিন্ন ঔষধ ব্যবহার করেন। তন্মেধ্যে, কয়েল, স্প্রে, ইলেক্ট্রনিক্স বিভিন্ন সামগ্রী সহ মশা নিধনে বিভিন্ন প্রকার বিষ প্রয়োগ করা হয়। যা বিভিন্ন রোগব্যধির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আপনি ভালোভাবেই জানেন যে, মশার আক্রমণে জ্বর, ডেঙ্গুজ্বর, ম্যালেরিয়া, ফাইলেরিয়া, লিস্ফ্যাটিক ফিলারিয়াসিস, জাপানিজ এনসেফালিটিস, এনসেফাইলাইটিস, ইয়ারো ফিভার হয়ে থাকে। এসব রোগের চিকিৎসা নেয়ার মতো পর্যাপ্ত ব্যবস্থা আমাদের জনসাধারণের কাছে নেই। তাই অনতিবিলম্বে সিলেট মহানগরবাসীর জন্য মশার প্রাদুর্ভাব নির্মূলে মাঠ পর্যায়ে বাস্তবভিত্তিক সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে সুদুরপ্রসারী কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৫ বার

Share Button

Callender

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930