শিরোনামঃ-

» গ্রেফতার নির্যাতন ও ডামী ভোটের নামে প্রহসন বন্ধ করুন : খন্দকার মুক্তাদির

প্রকাশিত: ২৩. ডিসেম্বর. ২০২৩ | শনিবার

ডেস্ক নিউজঃ

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির গণসংযোগ থেকে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী ও জেলা যুবদলের সভাপতি এডভোকেট মুমিনুল ইসলাম মুহিন সহ ৫ জন নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) বিকেলে অসহযোগ আন্দোলনে জনমত সৃষ্টির লক্ষ্যে গণসংযোগ কর্মসূচির শেষ দিনে বন্দরবাজার লালদিঘীর পার এলাকা থেকে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী ও মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের কয়েক’শ নেতাকর্মী গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ শুরু করেন।

পরে বন্দরবাজার হাসান মার্কেটের সামনে আসা মাত্র পুলিশ বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর অতর্কিতে হামলা চালায়। এসময় মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী ও জেলা যুবদলের সভাপতি এডভোকেট মুমিনুল ইসলাম মুমিন সহ ৫ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় পুলিশ।

গণসংযোগকালে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেন, দেশে নির্বাচনের কোন পরিবেশ নেই। নিজেরা নিজেরা প্রতিদ্বন্ধিতার বাহানা করে ক্ষমতাকে টিকিয়ে রাখতে নির্বাচনের দেশের জনগনের শত শত কোটি টাকা নষ্ট করা হচ্ছে। এই নির্বাচনের জনগনের কোন সম্পৃক্ততা নেই। তাই দেশের গণতন্ত্র রক্ষায় ডামী নির্বাচনের নামে প্রহসন বন্ধ করুন। ভোট গ্রহণে নিযুক্ত সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ ভাই ও বোনেরা, এই দেশ শুধু বিএনপির নয়, আপনার আমার সকলের। তাইকে দেশকে বাঁচাতে হলে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন থেকে বিরত থাকুন। মজলুম মানুষের আবেগের সাথে খেলা করবেন না। জুলুম যত তীব্র হয় বিজয় তত নিকটবর্তী হয়। জনতার বিজয় আসন্ন।

এসময় সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী বলেন, দেশে শুধু লুটপাট আর লুটপাট চলছে। তাই সরকারকে সকল প্রকার ট্যাক্স, খাজনা, ইউটিলিটি বিল ও অন্যান্য প্রদেয় স্থগিত রাখুন। ব্যাংকগুলো সরকারের লুটপাটের অন্যতম মাধ্যম বিধায় ব্যাংকে লেনদেন যথাসম্ভব এড়িয়ে চলুন। রাজনৈতিক নেতাকর্মীসহ মিথ্যা ও গায়েবী মামলায় অভিযুক্তগণ মামলায় হাজিরা দেয়া থেকে বিরত থাকুন। ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠায় যার যার অবস্থান থেকে অহযোগ আন্দোলনে যোগ দিন। এই সরকারের অধিনে দেশে কোন নির্বাচন হবে না ইনশাআল্লাহ।

সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন বলেন, স্বৈরাচার সরকার মজনগনের গণতান্ত্রিক আন্দোলনকেও সহ্য করতে পারে না। বিএনপির কর্মসূচিতে জনসম্পৃক্ততা দেখে তারা এখন বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের উপর গ্রেফতার-নির্যাতনে ষ্ট্রীমরোলার চালাচ্ছে। যতই নির্যাতন আসুকনা কেন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত বিএনপির নেতাকর্মীরা ঘরে ফিরে যাবে না।

এসময় সিলেট সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ন আহবায়ক রেজাউল হাসান কয়েষ লোদী, নজিবুর রহমান নজিব ও সৈয়দ মঈন উদ্দিন সুহেল, জেলা বিএনপির যুগ্ন সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান পাপলু সহ বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির নিন্দা
এদিকে, শান্তিপূর্ণ গণসংযোগ কর্মসূচি থেকে সিলেট মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এমদাদ হোসেন চৌধুরী ও সিলেট জেলা যুবদলের সভাপতি এডভোকেট মুমিনুল ইসলাম মুমিনকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী।

বিএনপি নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে বলেন, গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সৈনিকদের গ্রেফতার ও নির্যাতন করে ফ্যাসিবাদের শেষ রক্ষা হবে না। অভিলম্বে গ্রেফতারকৃত সকল রাজবন্দিদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। অন্যতায় এর পরিনাম খুবই ভয়াবহ হবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪০ বার

Share Button

Callender

March 2024
M T W T F S S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031