শিরোনামঃ-

» সিলেট জেলা উত্তর জামায়াতের ভার্চুয়াল রুকন সম্মেলন

প্রকাশিত: ০২. ডিসেম্বর. ২০২৩ | শনিবার

সকল প্রতিবন্ধকতা ও ষড়যন্ত্র  উপেক্ষা করে ইসলামী আন্দোলনকে বেগবান করতে হবে : অধ্যাপক মুজিবুর রহমান

ডেস্ক নিউজঃ
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেছেন, বাংলাদেশের মানুষের অধিকার আদায়ের চলমান আন্দোলনে আমাদের কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে। দেশের বর্তমান সংকটে জামায়াতের নেতাকর্মীদের আরও কার্যকর ও সক্রিয় ভূমিকা রাখতে হবে।
জনতার মুক্তির আন্দোলনকে গন্তব্যে পৌঁছাতে নিরলস প্রচেষ্টা চালাতে হবে। অন্য সকল গোলামী পরিহার করে আমাদের এক অল্লাহর গোলামী করতে হবে। প্রয়োজনে দ্বীনের জন্য জীবন দিতে হবে, তবুও কারো কাছে মাথা নত করা যাবে না। সকল প্রতিবন্ধকতা উপেক্ষা করে ইসলামী আন্দোলনকে বেগবান করতে হবে।

তিনি শনিবার (২ ডিসেম্বর) সিলেট জেলা উত্তর জামায়াত আয়োজিত ভার্চুয়াল রুকন সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, দেশের জনগণ একটি সুন্দর আগামীর প্রত্যাশায় জামায়াতে ইসলামীর দিকে চেয়ে আছে। দেশের যে কোনো দুর্যোগে, আন্দোলন-সংগ্রামে আমরা ময়দানে আমরা একনিষ্ঠভাবে কাজ করেছি যা দেশবাসীর কাছে প্রশংসিত হয়েছে। মহান আল্লাহর পক্ষ হতে বিশেষ প্রাপ্তি যে, দেশের যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামে জামায়াতে ইসলামী ও ইসলামী ছাত্রশিবির সবচেয়ে অগ্রগামী এবং পরীক্ষিত সংগঠন।
দেশের চলমান সংকট উত্তরণে কেন্দ্রীয় কর্মসূচি সফলভাবে বাস্তবায়নে আমাদের আবারও ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করতে হবে। এতে কোন প্রকার অগনতান্ত্রিক কাজ করা যাবেনা।
জেলা উত্তর জামায়াতের আমীর হাফেজ আনোয়ার হোসেইন খানের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী জয়নাল আবেদীনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা আব্দুল হালিম ও সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের।

সম্মেলনে প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা পেশ করেন সিলেট অঞ্চল টিম সদস্য মাওলানা হাবিবুর রহমান।

উপস্থিত ছিলেন, জেলা নায়েবে আমীর সৈয়দ ফয়জুল্লাহ বাহার, জেলা সহকারী সেক্রেটারি ইসলাম উদ্দীন, সহকারী সেক্রেটারি মাওলানা মাসুক আহমদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাওলানা আব্দুল হালিম বলেন, দেশের সর্ববৃহৎ ইসলামী সংগঠন জামায়াতে ইসলামীকে দেশের মানুষ আজ তৃতীয় বৃহত্তম রাজনৈতিক দল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।
ফ্যাসিস্ট সরকার দেশের প্রধান রাজনৈতিক শক্তি বিএনপি ও জামায়াতকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার কূটকৌশল হাতে নিয়েছে।
এ সরকার জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতাদেরকে ফাঁসী দিয়েছে, ৩০০ শত ভাইকে শহীদ করেছে, কয়েক হাজার ভাইকে পঙ্গু করেছে, লক্ষাধিক ভাইদেরকে জেলে নিয়েছে, তারপরও জামায়াত ইসলামকে স্তব্ধ করা যায়নি, যাবেও না ইনশাআল্লাহ ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেন, বিশ্বাসঘাতক, স্বার্থপর ও অর্থলোভী কতিপয় লোককে দিয়ে ভূঁইফোড় মৌসুমি দল তৈরি করে ২০১৪ ও ২০১৮ এর মতো নির্বাচনের নামে আরও একটি প্রহসনের সার্কাসের আয়োজন করতে যাচ্ছে। দেশবাসী আওয়ামী লীগকে আর সে সুযোগ দিবে না।

অবাধ, সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের লক্ষ্যে কেয়ারটেকার সরকারের দাবি মানতে জালিম সরকারকে বাধ্য করা হবে এবং জনগণের বাক-স্বাধীনতা ও ভোটাধিকার নিশ্চিত করা হবে ইনশাআল্লাহ।
আজ আদালতকে ব্যবহার করে ন্যায়ভ্রষ্ট রায় দিয়ে জাতীকে নেতৃত্ব শূন্য করার মহা ষড়যন্ত্রে সরকার কাজ করছে, তাই জাতীর ক্রান্তিলগ্নে মুক্তির এই আন্দোলনে আপনাদেরকে ঐতিহাসিক ভুমিকা পালন করতে হবে!

সভাপতির বক্তব্যে জেলা আমীর হাফেজ আনোয়ার হোসেইন খান বলেন, জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন-সংগ্রামে আমরা জীবন বাজি রেখে লড়াই করে যাচ্ছি।

বর্তমান সরকার দেশের মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার হরণ করেছে। দেশকে গভীর সংকটে নিমজ্জিত করেছে। এ অবস্থা আর চলতে দেওয়া যায় না। একদফা আন্দোলনের মাধ্যমে জনগণ প্রহসনের নির্বাচন প্রতিহত করবে, ইনশাআল্লাহ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪৯ বার

Share Button

Callender

March 2024
M T W T F S S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031