শিরোনামঃ-

» ভুয়া মেডিক্যাল ছাড়পত্র দিয়ে মামলা করে হয়রানি

প্রকাশিত: ২৫. মে. ২০২৩ | বৃহস্পতিবার

ডেস্ক নিউজঃ
সিলেটের বিশ্বনাথে ভুয়া মেডিক্যাল ছাড়পত্র নিয়ে মোস্তফা মিয়াগংদের বিরুদ্ধে সিআর মামলা দায়ের করেছেন মো. আনোয়ার হোসেন ধন মিয়াগংরা।

গত এপ্রিল মাসের ১৮ এপ্রিল মোস্তফা মিয়া সহ ৭ জনকে আসামি করে সিলেটের মাননীয় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ৩য় আদালত মামলাটি দায়ের করেন তিনি। যার নং- সিআর ১৮৪।

তদন্তে উঠে আসে, আদালতে মিথ্যা মামলার কাজে ব্যবহারের জন্য জালিয়াতি করে প্রেসক্রিপশন তৈরি করে উক্ত মামলা করেন মো. আনোয়ার হোসেন ধন মিয়াগংরা।

ভুয়া মেডিক্যাল ছাড়পত্র দিয়ে মামলা করায় এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে ১৪ মে সিলেটের মাননীয় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ৩য় আদালত বরাবর একটি আবেদন করেন মোস্তফা মিয়া। সে আবেদনের প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ আদালত তদন্তকারী কর্মকর্তাকে এর সতত্যা যাচাইয়ের জন্য নির্দেশ প্রদান করেন।

এমতাবস্থায় মামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও ন্যায় বিচারের স্বার্থে গত ১৫ মে বিশ্বনাথ থানার স্মারক নং ২২০৩(২) মূলে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সহ বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বরাবর একটি আবেদনপত্র প্রেরণ করা হয়।

উক্ত আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ২১ মে পরিচালকের পক্ষে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) কর্তৃপক্ষের স্মারক নং ওমেকহাসি/রেকর্ড রুম/২০২৩/১৩৭২ মূলে উল্লেখ করেন, মামলার জখমী মৃত ইমাম আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেন ধন মিয়া, আব্দুস সাত্তারের ছেলে সফিক মিয়া, মো. আব্দুল মন্নানের ছেলে মো. হোসেন মিয়া, হাজী ছুনুফর আলীর ছেলে মো. কুতুব আলী এই হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করেননি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই (নিঃ) মো. কবির উদ্দিন রোগীর ছাড়পত্রে উল্লেখিত জখমীরা সিলেট এমএসজি ওসামনী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করছেন মর্মে এজাহারে উল্লেখ থাকলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে জখমীদের চিকিৎসার কোন সত্যতা পাননি মর্মে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

এদিকে গত ১৯ এপ্রিল জমি সংক্রান্ত জেরে ১৯ জনকে আসামী করে বিশ্বনাথ থানায় মামলা দায়ের করেন মোস্তফা মিয়া। যার নং ১৩। মামলার আসামীরা হলেন, বিশ্বনাথ উপজেলার উত্তর দৌলতপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেন ধন মিয়া, আলা মিয়া, কুতুব আলী, শফিক মিয়া, হোসন আলী, লাল মিয়া, কালা, শায়েক মিয়া, আতাই, জমির, ইমন মিয়া, কালা মিয়া, কয়ছর, ছাদ মিয়া, মাসুক মিয়া, আনহার, ইশকার, খসরু মিয়া, আজিজুল। মামলায় অজ্ঞাত আরো ১০/১২ জনকে আসামী করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) উক্ত মামলার আসামীরা জামিন আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত বিশ্বনাথ উপজেলার উত্তর দৌলতপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেন ধন মিয়া, আলা মিয়া, কুতুব আলী, শফিক মিয়াকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। এসময় হোসন আলী, লাল মিয়া, কালা, শায়েক মিয়া, আতাই কে বিজ্ঞ আদালত জামির মঞ্জুর করেন। উক্ত মামলার অন্যন্যা আসামীরা এখনও পলাতক রয়েছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫৭ বার

Share Button

Callender

February 2024
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
26272829