শিরোনামঃ-

» বকেয়া এরিয়ার বিলের দাবিতে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ফেডারেশনের ডিসি বরাবর স্মারকলিপি পেশ ও বিক্ষোভ সমাবেশ

প্রকাশিত: ১৩. ডিসেম্বর. ২০২২ | মঙ্গলবার

স্টাফ রিপোর্টারঃ
বাংলাদেশ চা শ্রমিক ফেডারেশন, সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে অবিলম্বে  বকেয়া এরিয়ার বিল পরিশোধ সহ ৫ দফা দাবিতে মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় জেলা বরাবর স্মারকলিপি পেশ ও বিকাল ৪টায় লাক্কাতুরা রেস্টক্যাম্প বাজারে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
সকালে সভাপতি বীরেন সিং ও অজিত রায় নেতৃত্বে জেলা প্রতিনিধি দল জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারক লিপি প্রদান করে।
বিকাল ৪টায় লাক্কতুরা রেস্টক্যাম্প বাজারের বিক্ষোভ সমাবেশে বিরেন সিং এর সভাপতিত্বে ও অজিত রায় পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, জেলা উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেশন জেলা সদস্য প্রসেনজিৎ রুদ্র।
আরো বক্তব্য রাখেন সাংগঠনিক সম্পাদক হৃদয় লোহার,অর্থ সম্পাদক নমিতা রায়, সদস্য জেনি মুদি, শ্রীধাম মুদি প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন, চা শ্রমিকরা দৈনিক মজুরি বৃদ্ধি করাসহ আরো বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দাবি নিয়ে ১৯ দিনব্যাপী অনাহারে অর্ধাহারে থেকে এক লড়াকু মানসিকতায় আন্দোলন করেছে ও মালিকপক্ষ, দালাল নেতৃত্ব ও রাষ্টীয় টালবাহানা মোকাবিলা করে সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষকে পদক্ষেপ নিতে বাধ্য করেছে।
১৯ দিন আন্দোলনের পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার ফলে আন্দোলন থেকে বিরত হয় চা শ্রমিকরা। কিন্তু ঘোষণার প্রায় তিন মাস পার হলেও, এখনো চা শ্রমিকদের শ্রমিকদের ২০২১-২২ সালের চুক্তি সম্পন্ন হয়নি।আলোচনার নামে টালবাহানা করে মালিকপক্ষ শ্রমিকদের রক্ত পানি করা এরিয়ার বিল না দেওয়ার পাঁয়তারা করছে ।
চলতি ডিসেম্বর মাসে ২০২১-২২ সালের চুক্তি সম্পন্ন হওয়ার পূর্বেই যদি চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যায়, তাহলে এর ভবিষ্যৎ কি হবে তা নিয়ে শঙ্কায় আছে শ্রমিকরা।
এমনতর পরিস্থিতিতে দিকনির্দেশনা না পাওয়ায় চা শ্রমিকরা হতাশ হয়ে পড়ছে।এই এরিয়ার বিল দেয়া হয় কয়েক দফায়, তাও আবার শুধুমাত্র স্থায়ী শ্রমিকদের। যাতে থাকে শ্রমিক ঠকানো মালিকের ফাকিবাজির হিসাব।
আমরা এই পূর্নাঙ্গ এরিয়ার বিল স্থায়ী ও অস্থায়ী সকল শ্রমিকদের প্রদান ও অবশ্যই পরবর্তী চুক্তির আগেই এককালীন পরিশোধের দাবি জানাই।যথা সময়ে চুক্তি না হওয়ার অস্থায়ী শ্রমিকরা বার বার ঠকছেন।
কিন্তু অস্থায়ী শ্রমিকরা স্থায়ী শ্রমিকদের সমপরিমান কাজ করেন।চা বাগানের চুক্তির নিয়ম ও শ্রম আইন অনুযায়ী ২৭ দিনের এরিয়ার টাকা,ধর্মঘটকালীন মজুরি ও দুই বছরের বোনাসের এরিয়ার টাকা শ্রমিকদের অবশ্যই প্রাপ্য। তাই আমরা মালিকপক্ষের টালবাহানা বন্ধ করে ২০২১-২০২২ সালের চুক্তি সম্পাদন সম্পন্ন করে অবিলম্বে স্থায়ী ও অস্থায়ী সকল শ্রমিকদের এরিয়ার বিল পরিশোধ করার দাবি জানাই।সকল চা শ্রমিকদের সাথে নিয়ে সামনের দিনে নিন্মোক্ত ৫ দফার ভিত্তিতে আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানান জানাই।
দাবি সমূহঃ
১) অবিলম্বে ২০২১-২২ সালের চুক্তি সম্পন্ন কর।
২) ২০ মাসের বকেয়া এরিয়ার বিল পরিশোধ কর।
৩) ২ বছরের বোনাসের এরিয়ার প্রদান কর।
৪) শ্রম আইনের ১১৭(চ) ধারা অনুযায়ী ১৫ দিনের ধর্মঘট কালীন মজুরি প্রদান কর।
৫) শিক্ষা, চিকিৎসা, বাসস্থান, ভূমি অধিকার সহ প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অবিলম্বে বাস্তবায়ন কর।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৫৯ বার

Share Button

Callender

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930