শিরোনামঃ-

» সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে লাল পতাকা র‌্যালি

প্রকাশিত: ০৬. আগস্ট. ২০২২ | শনিবার

স্টাফ রিপোর্টারঃ
সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন এর ২৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত।
শনিবার (৬ আগস্ট) বিকেল ৪টায় সংগঠনের পূর্বঘোষিত লাল পতাকা র‌্যালি সিলেট রেজিস্ট্রারি মাঠ প্রাঙ্গনে জমায়েত হয়ে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক তালতলা, মির্জাজাঙ্গাল, জামতলা, জিন্দাবাজার পয়েন্ট হয়ে ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্টে এসে এক সমাবেশে মিলিত হয়। জেলা সভাপতি মোঃ ছাদেক মিয়ার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আনছার আলীর পরিচালনায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ সিলেট জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সুরুজ আলী,  জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক শাহীন আলম।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা প্রেস শ্রমিক ইউনিয়ন এর সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সরকার, সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক শেখর সেন, সিলেট জেলা স’মিল, শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট শাহপরান থানা কমিটির সভাপতি মোঃ খোকন আহমদ, জাতীয় ছাত্রদল সিলেট জেলা কমিটির অন্যতম নেতা বদরুল আজাদ, সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক সাগর আহমদ, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক  আবদুল মুমিন রাজু।

বক্তারা বলেন হোটেল রেস্টুরেন্টের শ্রমিকরা দেশের শ্রমিক-কৃষক-জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন নয়। শ্রমিক-কৃষক-জনগণ আজ গভীর অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক তথা সামগ্রিক সংকটে জর্জরিত। চাল-ডাল-তেল-চিনিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সকল জিনিসপত্রের দাম লাগামহীনভাবে বৃদ্ধি পেয়ে চলছে।

এমনকি জীবনরক্ষকারী ঔষধপত্রের দামও ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। এতে হোটেল রেস্টুরেন্টের শ্রমিকসহ নিম্ন আয়ের দরিদ্র জনগোষ্ঠী অনাহারে-অর্ধাহারে দিনানিপাত করতে বাধ্য হচ্ছে। তেমনি অসুস্থ্য হয়েও নূন্যতম চিকিৎসাটুকু করাতে পারছে না। বক্তারা আরো বলেন, বাজারদরের সাথে সংগতি রেখে মজুরি নির্ধারণ না হওয়ার কারণে শ্রমিকরা পরিবার পরিজন নিয়ে দুঃখ কষ্টে জীবন যাপন করতে হচ্ছে। মজুরি বোর্ড গঠন করে বাজারদরের সাথে সামঞ্জস্য রেখে নিম্নতম মজুরি নির্ধারণের দাবিতে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

বাংলাদেশ শ্রম আইন-২০০৬ এ শ্রমিকদের নিয়োগপত্র, পরিচয়পত্র, সার্ভিসবুক প্রদানের কথা থাকলেও মালিকরা তা প্রদান করেন না। এমনকি সরকারের শ্রমআইন বাস্তবায়নের জন্য জনগণের ট্যাক্সের টাকায় বেতনভোগী শ্রম অধিদপ্তর ও কলকারখানা প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা এ বিষয়ে কার্যকর কোনো ভূমিকা গ্রহন করেননা।

শ্রম আইন লঙ্ঘন করলেও সরকারের সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ মালিকদের বিরুদ্ধে কোনো আইনি ব্যবস্থা নেননা। শ্রমিক কৃষক জনগণের সাম্রাজ্যবাদ সামন্তবাদ বিরোধী জাতীয় গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে অগ্রসর করা ছাড়া হোটেল শ্রমিক শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধিসহ সকল অধিকার অর্জিত হবে না। শোষণমূলক সমাজ ব্যবস্থা পরিবর্তনের লক্ষ্যে শ্রমিক শ্রেণির শ্রেণি সচেতন নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সকল প্রকার শোষণ নির্যাতনের বিরুদ্ধে লড়াই সংগ্রাম গড়ে তোলার আহবান জানান এবং সাম্প্রতিক আকষ্মিকভাবে ডিজেল, পেট্রোল, কেরোসিনের মূল্যবৃদ্ধি করায় জনজীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই তার প্রভাব ফেলছে। বক্তারা সরকারের এ জনহিতকর  কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানান এবং অনতিবিলম্বে ডিজেল, পেট্রোল, কেরোসিনের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহারের দাবি জানান।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩১৯০ বার

Share Button

Callender

December 2022
M T W T F S S
« Nov    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031