শিরোনামঃ-

» মুজিববর্ষ ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে বঙ্গবীর ওসমানী স্মৃতি সংসদ সিলেটের কর্মসূচী পালিত

প্রকাশিত: ২৬. মার্চ. ২০২১ | শুক্রবার

স্টাফ রিপোর্টারঃ

বঙ্গবীর ওসমানী স্মৃতি সংসদ সিলেটের উদ্যোগে মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে মুক্তিযুদ্ধের লাখো শহীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শুক্রবার (২৬ মার্চ) সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বঙ্গবীর ওসমান অনুরাগী মো. সালেহ আহমদ ও সংসদের সভাপতির পরিবারের অর্থানে প্রতিবন্ধী শিশু শিক্ষার্থী আরমান হোসেনকে স্কুলে যাওয়ার নিমিত্ত একটি হুইল চেয়ার এবং রুমা আক্তার ফাতেমাকে কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে এইচএসসিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীকে সেলাই মেশিন প্রদান করা হয়।

সংসদের সভাপতি সৈয়ীদ আহমদ বহলুলের সভাপতিতে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, সংসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক চৌধুরী মোহাম্মদ জিলন, সহ সভাপতি আমিরুল হোসেন চৌধুরী, বিশিষ্ট সাংবাদিক লিয়াকত আলী খান। উপস্থিত ছিলেন, মো. সিরাজুল ইসলাম, বাহরুল ইসলাম, মো. আরিফুল হক, ফারুক মিয়া, মো. সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

আলোচনা সভা ও হুইল চেয়ার ও সেলাই প্রদান শেষে মহান মুক্তিযুুদ্ধের সিইনসি বঙ্গবীর জেনারেল এম. এ. জি. ওসমানীর মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সকল শহীদানদের মাগফেরাত কামনা এবং দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন হযরত মাওলানা হাফিজ শামসুল ইসলাম ভাদেশ্বরী।

উপস্থিত ছিলেন, হযরত হাফিজ আমির উদ্দিন (রহ.) এতিমিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রধান হাফিজ, নজির হোসেন সংসদের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ।

আলোচনা সভায় সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, জাতির বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে ১৯৭১ এ সিলেটের সু-সন্তান বাংলাদেশের অহংকার তৎকালীন কর্ণেল এম. এ. জি ওসমানী মুজিব নগর সরকারের পরিচালনায় বঙ্গবন্ধুর অবর্তমানে মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব না দিলে সাড়ে ৯ মাসে আমরা স্বাধীন হতে পারতাম কি না, তা সন্দেহ জনক ছিল।

মুক্তিযুদ্ধের সময়কালীন থেকে যুদ্ধ পরবর্তী দেশ গঠনে বঙ্গবীর জেনারেল এম. এ. জি ওসমানীর অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি সহ যারা অবদান রেখেছেন তাদের মূল্যায়নের সময় এখনই। তাই বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নিকট মহান মুক্তিযুদ্ধের নায়ক বঙ্গবীর জেনারেল ওসমানীর যথাযথ মূল্যায়ন চাই। যে লক্ষ এবং উদ্দেশ্য নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধ সংগঠিত হয়েছিল আমরা বিজয় অর্জন করেছিলাম, সেই বিজয়ের মধ্য দিয়ে জাতির জনক আমাদেরকে স্বাধীন ভূখন্ড, জাতীয় পতাকা, সংবিধান উপহার দিয়েছিলেন।

তিনি অর্থনৈতিক মুক্তি দিয়ে যেতে পারেননি, তারই সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে আজ বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে একটি উন্নত রাষ্ট্রের দ্বারে অবস্থান করছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় দুর্নীতি আজ চরম আকার ধারণ করেছে, যে কারনে সকল অর্জন প্রশ্নের মুখে। তাই দুর্নীতি বন্ধ করতে সরকারের নিকট জোর দাবী জানাই এবং শিক্ষিত বেকারদের কর্মসংস্থানের সু-ব্যবস্থার জন্যে জরুরী পদক্ষেপ চাই।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৮৫ বার

Share Button

Callender

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930