শিরোনামঃ-

» বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের কৃতজ্ঞতা

প্রকাশিত: ০৩. মার্চ. ২০১৮ | শনিবার

স্টাফ রিপোর্টারঃ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সংসদের অন্যতম সদস্য, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান তাঁর অসুস্থতার সময় পাশে দাঁড়ানো, সার্বিক খোঁজখবর নেওয়াসহ দেশে বিদেশে রোগমুক্তি কামনা করে দোয়া ও প্রার্থনার জন্য সকল মহলের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন। তিনি শনিবার (৩ মার্চ) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে এ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

বিবৃতিতে সাবেক মেয়র কামরান বলেন- মহান রাব্বুল আলামীনের অশেষ রহমতে ও সিলেটবাসীর দোয়ার বরকতে ঢাকা ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনে তার হার্টে ৩টি রিং স্থাপন করা হয়েছে।

চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার(১ মার্চ) থেকে ছড়ারপারের নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন।

তার অসুস্থতার খবর পেয়ে চিকিৎসার খোঁজখবর নেওয়া সহ আশু রোগমুক্তি কামনার জন্য মাননীয় মন্ত্রীবর্গ, সংসদ সদস্যবৃন্দ, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, সাংবাদিকবৃন্দ, আলেম-ওলামাবৃন্দ, প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দ, খেঁটে খাওয়া সাধারণ মানুষ, দিনমজুর, শ্রমিক, নিম্ন আয়ের মানুষ, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার সর্বস্তরের মানুষের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

তাছাড়া হযরত শাহজালাল (র:) ও হযরত শাহপরাণ (র:) মাজার মসজিদসহ বিভিন্ন মসজিদ, মাদরাসা ও ধর্মীয় উপাসনালয়ে তার রোগমুক্তি কামনা করে যে দোয়া মাহফিল ও প্রার্থনার আয়োজন করা হয় সে জন্য তিনি সকল আয়োজকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

চিকিৎসাধীন সময়ে আন্তরিক ও উন্নত সেবা প্রদানের জন্য ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান সভাপতি ব্রিগেডিয়ার (অব:) আব্দুল মালিক, তার কন্যা প্রফেসর ফজিলাতুন নেসা মালিক, প্রফেসর ফারুক আহমদ সহ সকল চিকিৎসক, পরিচালক ও সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন- সকলের দোয়া ও আশির্বাদে সুস্থ হয়ে আবারো মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাবেন।

সকলের  ভালোবাসা নিয়ে আজীবন সকলের সাথে মিলে মিশে কাজ করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করে তার আশু রোগমুক্তির জন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৮৪৯ বার

Share Button

Callender

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930