শিরোনামঃ-

» গাজীপুরে আইনজীবী হত্যা মামলায় ৫ জনের ফাঁসির আদেশ

প্রকাশিত: ২৩. জুন. ২০১৬ | বৃহস্পতিবার

সিলেট বাংলা নিউজ ডেস্কঃ গাজীপুরে শিক্ষানবিশ আইনজীবী ফিরোজ্জামান সোহেল হত্যার দায়ে  পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো. ফজলে এলাহী ভূইয়া এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে আসামিদের ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- গাজীপুরের মধ্য ছায়বীথি এলাকার রফিকুল ইসলামের বাড়ির ভাড়াটিয়া পটুয়াখালীর  বাউফল থানার মধ্য মদনপুরা গ্রামের আব্দুর রউফের স্ত্রী আমেনা বেগম (৫৩), তার ছেলে সজল (২৮),  মো. তিথি (৩১) ও বাপ্পি (৩৩)  এবং গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের কফিল উদ্দিন মাস্টারের ছেলে বাদল (৪২)। রায় ঘোষণার সময় বাদল ও তিথি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আমেনা বেগম, সজল ও বাপ্পি পলাতক রয়েছেন।

গাজীপুর আদালতের এপিপি আতাউর রহমান জানান, ফিরোজ্জামান সোহেলের পরিবার গাজীপুর শহরের রথখোলা এলাকায় ভাড়া থাকেন। সোহেলের ছোট ভাই মাসুম পারভেজকে আব্দুর রউফের ছেলে তিথি  মারধর করেন। পরে সোহেলের বাবা এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায়  তিথি গ্রেপ্তার হন এবং পরে জামিনে মুক্তি পান।

মুক্তি পেয়ে সোহেলের পরিবারকে বিভিন্ন রকমের হুমকি দিত তিথি। এক পর্যায়ে তিথির মা আমেনা বেগম বিষয়টি মিমাংসার প্রস্তাব দিয়ে মোবাইল ফোনে সোহেলকে তাদের বাসায় আসতে বলেন। ২০০৮ সালের ৯ মার্চ সন্ধ্যা ৬টার দিকে সোহেল তিথিদের ভাড়া বাসার কাছে গেলে সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে।

সোহেলের চিৎকারে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে গাজীপুর সদর হাসপাতালে পাঠায়। সেখান থেকে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয় । পরে স্বজনরা তাকে রাজধানীর লালমাটিয়া ইস্টার্ন হসপিটাল অ্যান্ড মেডিক্যাল সার্ভিস সেন্টারে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীর অবস্থায় ১০ মার্চ সোহেল মারা যান। এ ব্যাপারে সোহেলের বাবা সোহরাব উদ্দীন বাদী হয়ে ৮ জনের নাম উল্লেখ ও ৩-৪  জনকে অজ্ঞাত আসামি করে জয়দেবপুর থানায় মামলা করেন।

আতাউর রহমান আরও জানান, তদন্ত কর্মকর্তা ওই পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে ২০০৮ সালের  ১০ জুলাই চার্জশিট দাখিল করেন। শুনানি শেষে আদালতের বিচারক বৃহস্পতিবার এ রায় প্রদান করেন।

 

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪১১ বার

Share Button

Callender

July 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031