শিরোনামঃ-

» সিলেটে বিআরটিএ’র দুই কর্মকর্তা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি

প্রকাশিত: ২০. মার্চ. ২০২৩ | সোমবার

ডেস্ক নিউজঃ

সিলেট বিআরটিএ সার্কেল’র সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ারিং) রিয়াজুল ইসলাম ও মোটরযান পরিদর্শক আব্দুল বারীকে প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। সোমবার (২০মার্চ) সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হাজী মো. ময়নুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুহিমের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর রাজন, সহ-সাধরন সম্পাদক মো. মাহবুব মিয়া মবু), সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হাছনাত, কোষাধ্যক্ষ আব্দস শহিদ, সদস্য সাহেদ আহমদ, সিএনজি অটোরিক্সা মালিক সমিতির সভাপতি শাহ দেলোয়ার হোসেন, শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি নং ৭০৭ সাধারণ সম্পাদক আজাদুর রহমান।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন, থ্রী হুইলার শ্রমিক ইউনিয়ন অটো টেম্পু অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন ও সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন উপকমিটির নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বিআরটিএ একটি জনসেবামূলক প্রতিষ্ঠান। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, অবৈধভাবে টাকা উপার্জনের জন্য এই দুই কর্মকর্তা বেমালুম ভুলে গেছেন তাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। তারা টাকার মোহে নীতি নৈতিকথা, বিধিবিধান উপেক্ষা করে বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা ও সেবাগ্রহীতাদের সাথে দুর্ব্যবহারের কারণে এই মর্যাদার প্রতিষ্ঠানটি এখন যেন কসাইখানায় পরিণত হয়েছে।

বিআরটিএ এই দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, গত বছরের ২ অক্টোবর মেট্টো আরটিসির সভায় সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়-‘সিলেট জেলার ঠিকানায় রেজিস্ট্রেশনকৃত সিএনজি অটোরিকশার মালিকগণ মেট্টো ঠিকানায় বদলী হতে পারবে না।’ কিন্তু এই সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করেছেন সহকারি পরিচালক (ইঞ্জিঃ) রিয়াজুল ইসলাম। তিনি প্রতিটি সিএনজি অটোরিকশা থেকে ৫০/৬০ হাজার করে গ্রহণপূর্বক এমআরটিসির সিদ্ধান্ত ভঙ্গ করে অবৈধভাবে মালিকানা বদলী করেছেন। মালিকানা বদলীর বিষয়টি সিলেট সিএনজি অটোরিকশার মালিক ও অন্যান্য ব্যক্তি এই অনিয়ম দুর্নীতির বিষয়ে জানাজানি হওয়াতে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এছাড়াও এই দুই কর্মকর্তা রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস, ড্রাইভিং লাইসেন্স, যানবাহনের মালিকানা বদলী সহ বিভিন্ন সেবা গ্রহণকালে নানা অজুহাতে মালিক ও পরিবহণ শ্রমিকদের হয়রানী করে থাকেন বলে অভিযোগ করেন নেতৃবৃন্দ।গত তিন মাসে আনুমানিক ১ হাজার সিএনজি অটোরিক্সার মালিকানা বদল করে টাকা পাহাড় গড়ে তুলেছে তারা। এদিকে, সোমবার সকালে মানববন্ধন পরবর্তীতে সিলেটের জেলা প্রশাসকের কাছে বিআরটিএ সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিঃ) রিয়াজুল ইসলাম ও মোটরযান পরিদর্শক আব্দুল বারীর প্রত্যাহার জানিয়ে স্মারকলিপি দিয়েছেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৪৮ বার

Share Button

Callender

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930