শিরোনামঃ-

» কোবিড-১৯ করোনা সংক্রমণে শীর্ষে মৌলভীবাজার; সকল পর্যটন স্পট বন্ধ ঘোষনা

প্রকাশিত: ০১. এপ্রিল. ২০২১ | বৃহস্পতিবার

বড়লেখা প্রতিনিধি মাহিনুর ইসলামঃ

সাড়া দেশের কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির হার বিবেচনায় মৌলভীবাজার জেলা রয়েছে শীর্ষে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে মৌলভীবাজারের পর ২য় অবস্থানে মুন্সীগঞ্জ, ৩য় চট্রগ্রাম, ৪র্থ ঢাকা ও পঞ্চম অবস্থায় রয়েছে সিলেট। সারাদেশে করোনা সংক্রমণের টেস্টের বিপরীতে এ পরিসংখ্যন তৈরী হয়। সংক্রমণ রোধে আগামীকাল বৃহস্পতিবার ১ এপ্রিল থেকে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টার পর জেলার সব দোকানপাট বন্ধ করতে প্রশাসন থেকে মাইকিং করা হয়।

জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান জানান, আমরা গত কয়দিন ধরে জেলাব্যাপী প্রচার চালিয়ে যাচ্ছি স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে। ১ এপ্রিল থেকে আমরা আরও কঠোর হব। সন্ধ্যা ৭টার পর সব দোকান পাঠ বন্ধ থাকবে। স্বাস্থ্যবিধি না মানলের প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হবে।

আগামী ১৫ দিন সারা জেলায় মাইকিং করে ভ্যাকসিন নেওয়ার ব্যাপারে উৎসাহ দেওয়া হবে। প্রতিটি হোটেল রিসোর্টের ৫০% বুকিং বাতিল করতে হবে এমন নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া জানান, জেলাব্যাপী সবধরণের জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিয়ে, ওয়াজ, কীর্তন কিছুই করা যাবে না। এতদিন আমরা স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে প্রচার চালিয়ে আসছিলাম কাল থেকে জেলাব্যাপী আরও গতি বৃদ্ধি করা হবে। সেই সাথে বন্ধ থাকবে সকল পর্যটন স্পট।

মৌলভীবাজার পৌর সভার মেয়র মোঃ ফজলুর রহমান জানান, করোনা প্রতিরোধে প্রত্যেককে সচেতন হতে হবে ও স্ব্যাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে। পৌর নাগরিকদের সচেতন রাখতে পৌর এলাকার ৯টি ওয়ার্ডে রাত ৮টার মাইকিং করা হয়।

গত কয়েকদিন থেকে পৌর এলাকায় হেন্ড সেনিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। খাবার হোটেল গুলোতে আসন অর্ধেক করার জন্য সকল হোটেল মালিককে জানানো হয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন চৌধুরী ডাঃ মোঃ জালাল উদ্দিন মুর্শেদ জানান, সারাদেশে করোনা সংক্রমণের হার টেস্টের বিপরীতে ১১ মার্চ হইতে ৩১ মার্চ পর্যন্ত মোট ৪১৪টি টেস্টের মধ্যে পজিটিভ আসে ৯২ জনের।

ওই সময়ে মৃত্যু হয় ২ জনের। যা সংক্রমণের হার ২২.২% রয়েছে। সংক্রমণের দিক থেকে এক নাম্বারে আছে মৌলভীবাজার, এই তথ্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে আমাদেরকে জানানো হয়েছে।

জেলায় এখন পর্যন্ত মোট পজেটিভ রোগী ২০৩৯ জন তার মধ্যে মারা গেছেন ২৪ জন।

বর্তমানে স্বাস্থ্যবিধি মানার পাশাপাশি ভ্যাকসিন নিতে জনগনকে আমরা উৎসাহ দিচ্ছি।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৬৮ বার

Share Button

Callender

March 2024
M T W T F S S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031