শিরোনামঃ-

» বিশ্ব হিমোফিলিয়া দিবসে সিলেট উইমেন্স মেডিকেলে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

প্রকাশিত: ১৭. এপ্রিল. ২০১৯ | বুধবার

ভয় নয় সচেতনতার মাধ্যমে হিমোফিলিয়া প্রতিরোধ করতে হবে

স্টাফ রিপোর্টারঃ সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিশ্ব হিমোফিলিয়া দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে মেডিকেল কলেজের শিশু বিভাগ র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করেছে। সভায় শিশু বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীরা হিমোফিলিয়া বিষয়ের চিকিৎসা পদ্ধতি, অতীত সমস্যা ও ভবিষ্যৎ করণীয় নিয়ে চমৎকার প্রজেক্টর উপস্থাপন করেন।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) বেলা ১১টায় হিমোফিলিয়া রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। উইমেন্স মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষসহ বিভিন্ন বিভাগের প্রফেসর, শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

পরে বেলা ১২টার দিকে মেডিকেল কলেজের কনফারেন্স হলে আলোচনা সভায় বিভিন্ন বিভাগের অধ্যাপকবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। তারা বলেন মানব ইতিহাসের প্রাচীনতম দুরারোগ্য মরণব্যাধিগুলোর মধ্যে হিমোফিলিয়া একটি বংশাণুক্রমিক রক্তক্ষরণজনিত রোগ।

রক্তে জমাট বাঁধার উপাদান বা ফ্যাক্টর জন্মগতভাবে কম থাকার কারণে হিমোফিলিয়া রোগটি হয়ে থাকে। এ রোগটি সাধারণত পুরুষের হয়ে থাকে। তারা বলেছেন রক্তে ফ্যাক্টর-৮-এর ঘাটতির কারণে হিমোফিলিয়া-এ এবং ফ্যাক্টর-৯ এর অভাবে হিমোফেলিয়া-বি আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটে।

হিমোফেলিয়া হলে রোগীর খুব বেশি রক্তপাত হয়। মহিলাদের মাসিকের সময় অনেক দিন ধরে রক্ত ঝরা, সময়ে সময়ে নাক বা দাঁত দিয়ে রক্ত বের হওয়া, দাঁতের অপারেশনের পর প্রচুর রক্তপাত হওয়া এবং প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত যাওয়া এসবই হিমোফিলিয়া রোগের কারণ। সাধারণত দুই ধরনের হিমোফিলিয়া রোগী দেখা যায়, হিমোফেলিয়া-এ এবং হিমোফেলিয়া-বি।

সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা. আজির উদ্দিন এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ বিশিষ্ট চিকিৎসক প্রফেসর ডা. ইসমাইল পাটোয়ারী। প্রফেসর ডা. পাটোয়ারী শিক্ষার্থীদের হিমোফিলিয়া বিষয়ে চমৎকার উপস্থাপনার প্রশংসা করে বলেন- মানবতার সেবায় আমাদের আরো আত্ম নিয়োগ করা দরকার।

গবেষনা ও দক্ষতার বৃদ্ধির মাধ্যমে চিকিৎসকদের এগিয়ে আসার পাশাপাশি জনসাধারনের সচেতনতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। ভয় নয়, সচেতনতার মাধ্যমে হিমোফিলিয়া প্রতিরোধের কথা গুরুত্ব দিয়ে তুলে ধরেন বিজ্ঞ চিকিৎসকবৃন্দ।

সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- হলি সিলেট হোল্ডিং লি: এর সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. এম এ মতিন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- উইমেন্স মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. ফজলুর রহিম কায়সার। আলোচনায় আরো অংশগ্রহন করেন প্রফেসর ডা. শাহানা ফেরদৌস চৌধুরী, প্রফেসর ডা. রাশেদা বেগম, প্রফেসর ডা. রাশেদুল হক, প্রফেসর ডা. তহুর আব্দুল্লাহ, প্রফেসর ডা. আমজাদ হোসেন, প্রফেসর ডা. নজরুল ইসলাম ভূইয়া, প্রফেসর ডা. কাজী মুহাম্মদ সেলিম, প্রফেসর ডা. মাহজুবা উম্মে সালাম, সহযোগী অধ্যাপক ডা. ওয়েছ আহমদ চৌধুরী, সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. সাহাব উদ্দিন, সহকারী অধ্যাপক ডা. মো ফেরদৌস হাসান, সহকারী অধ্যাপক ডা. হোসাইন আহমদ, শিশু বিভাগের রেজিস্টার ডা. নিজাম আহমদ চৌধুরী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন শিশু বিভাগের রেজিস্টার ডা. মনজুরুল আহসান তাজিব।

প্রজেক্টরে হিমোফিলিয়া বিষয়ে তথ্য চিত্র উপস্থাপন করেন- শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী পূজা গিরি, রেহেনা আক্তার মৌসুমী, সাবরিনা মমতাজ, স্মিতা খাদকা ও ফারিহা তাসনিম আখঞ্জি।

এদিকে স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ (১৬-২০) উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেছে উইমেন্স মেডিকেল কলেজ।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) আলোচনা সভায় স্বাস্থ্য সেবায় আরো ভূমিকা পালনের উপর গুরুত্বারোপ করেন- মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষসহ অন্যান্য সিনিয়র প্রফেসরবৃন্দ। সেবা সপ্তাহে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের মাধ্যমে বিনামূল্যে ইনডোর ও আউটডোর চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হচ্ছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৭ বার

Share Button

Callender

April 2019
M T W T F S S
« Mar    
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930